অবশেষে জানা গেল তাহসান-মিথিলার বিবাহ বিচ্ছেদের মূল কারণ

বাংলাদেশের তারকা দম্পতিদের মধ্যে সবচেয় বেশি প্রিয় ছিল তাহসান মিথিলার জুটি। তারা যেন একে অপরের জন্য তৈরী। কিন্তু সম্প্রতি তাদের বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনায় একদিকে ভক্তমহল সহ সারা দেশের মানুষ যেন হতবাক, অবাক, নির্বাক। এর পর থেকেই ভক্ত মহলে শুধু একটাই প্রশ্ন কেন বিবাহ বিচ্ছেদের মত সিদ্ধান্ত নিলেন দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই তারকাজুটি।

তাহসান এবং মিথিলা দুজনেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। আর সেখান থেকেই শুরু হয় তাদের ভালোবাসার গল্প। সেই দিনে এমন কোন ভালবাসা দিবস ছিল না যখন মিথিলার বাসার দরজায় চুপিসারে ফুল রেখে এসে ফোনে ভালবাসা দিবসের শুভেচ্ছা জানান নি তাহসান। বিশ্ববিদ্যালয়ের দুবছর প্রেমের সম্পর্কের পর একে অপরকে স্বামী স্ত্রী রূপে গ্রহণ করেন তারা। কিস্তু সম্পর্কের ১১ বছরের মাথায় কি এমন ঘটে গেল যে তারা আলাদা হয়ে গেলেন চির দিনের জন্য?

এ বছরের মে মাসেই বিবাহ বিচ্ছেদ হয় তাহসান মিথিলার। কিন্তু অবাক করার মত তথ্যটি হলো যে তার প্রায় দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে আলাদাভাবে থেকেছেন এই তারকাজুটি। যদিও প্রথম দিকে কিছু খবর ছড়ালেও এ ব্যাপারে কান দেন নি কেউ। কারণ তাহসান মিথিলা একে অপরকে ছেড়ে যাবেন তা হয়তো কল্পনাও করেন নি কেউ। তাই ফেসবুক স্ট্যাটাসে তাহসান মিথিলার বিবাদ বিচ্ছেদের ঘটনার জানতে পেরে এক মুহুর্তের জন্য যেন চোখের সামনে অন্ধকার দেখেছেন এই তারকাজুটির অগণিত ভক্তরা। চোখের পানিতে সিক্ত হৃদয়ে ভক্তেদের মনে শুধু একটাই প্রশ্ন, কেন এমন হলো? তাছাড়া তাহসান মিথিলার এই সিদ্ধান্ত কোনভাবেই মেনে নেয়নি তাদের ভক্তরা।

সংসার জীবনে মানুষকে বহু প্রতিকূলতার সামনা সামনি হতে হয় এবং এটিকে জীবনের একটি অংশ বলেই ভাবেন তাহসান-মিথিলা। তাদের মতে জীবনে ভালো-খারাপ দুটো সময় আসবে এটাই স্বাভাবিক। বিয়ের পর থেকে সবার সামনে একটি সফল জুটির উদাহরণ হয়েই ছিলেন তাহমান-মিথিলা। তারা ছিলেন ভক্ত মহল ছাড়ার অসংখ্য মানুষের জন্য অনুপ্রেরণা।

বেশ কিছু দিন আগে থেকেই তাহসান মিথিলার বিবাহিত জীবন স্বাভাবিক নয় এমন গুঞ্জন ভেসে বেড়াচ্ছিল মিডিয়াতে। তাহসান-মিথিলার মধ্যকার সম্পর্কে যে ক্রমশ দূরত্ব বৃদ্ধি হচ্ছে তা হয়তো আগে থেকেই আন্দাজ করা গেছিল। কিন্তু কারণ নির্ণয়ের পূর্বের বিচ্ছেদের ঘোষনা দিয়ে সবাইকে কাঁদালেন এই তারকাজুটি। কিন্তু কেন?

গত মে মাসে বিবাজ বিচ্ছেদের মাধ্যমে তাদের ১১ বছরের সংসার জীবনের সমাপ্তি ঘোষনা করেন তাহসান-মিথিলা। তবে সবচেয়ে অবাক করার মত ব্যাপারটি হলো বিভিন্ন গুঞ্জন থাকা সত্বেও তারা কেউ কাউকে কোনরুপ দোষারোপ করেন নি যা ভক্তদের কৌতুহলকে বাড়িয়ে দিয়েছে শতগুনে। ২০১৭ সালের মে মাসেই আনুষ্ঠানিক ভাবে বিবাহ বিচ্ছেদের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন তাহসান-মিথিলা। পরবর্তীতে সংবাদ মাধ্যমের মাধ্যমে সবাইকে বিষয়টি জানাতে চেয়েছিলেন তারা। কিন্তু তার আগেই বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে উঠে আসে তাহসান-মিথিলার বিচ্ছেদের খবর। পরবর্তীতে ফেসবুক স্টাটাসের মাধ্যমে খরটির সত্যতা নিশ্চিত করেন খোদ এই তারকাজুটি।

তবে ভক্তদের আশার আলো এখনো নেভেনি। তারা এখনও মনে করেন সবকিছু ভুলে গিয়ে আবার এক হবেন এই জনপ্রিয় তারকাযুগল। যদিও তাহসানে ঘনিষ্ঠ সূত্রের মাধ্যমে যতটুকু জানা যায় তাতে এটি নিশ্চিত হওয়া যায় যে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তটি হঠা’ করেই নেয়নি তাহসান-মিথিলা। আলাদা থাকাকালীন সময়ে তাহসান-মিথিলা উভয়পক্ষের ঘনিষ্ঠ জনেদের শত প্রয়াসের পরেও সিদ্ধান্তে অটল থাকেন তারা। বিচ্ছেদের ঘোষণার পরদিন মিথিলা জানান, শিগগিরই তাহসানের সঙ্গে তার কাজ করার কোনো প্ল্যান নেই। ভবিষ্যতের বিষয় নিয়ে তিনি এখনই কিছু বলতে নারাজ।

তাহলে কেন হল এই বিবাহ বিচ্ছেদ। হাজারো গুঞ্জনের মাঝখানে অনেকে যে কারনটিকে দায়ী করছেন তা হলো পারষ্পরিক দূরত্ব, মনের অমিল এবং ভিন্ন ভিন্ন ক্যারিয়ার পরিকল্পনা।

তবে যদি তাই হয়ে থাকে তবে এখন কি করছেন এই তারকাজুটি ? জানতে চান? পড়ুন অবশেষে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এলেন তাহসান-মিথিলা