আপনার এসি কখন আপনার স্বাস্থ্যের জন্য হুমকী

গরমের দিনে শীতাতপ-নিয়ন্ত্রিত কক্ষে বসে কাজ করে, লেখাপড়া করতে, ঘুমাতে বা আড্ডা দিতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু এই ভালো লাগার মত পরিবেশটি যে কোন সময় আমাদের জন্য স্বাস্থ্যঝুকির কারণ হয়ে উঠতে পারে এমনতাই বক্তব্য বিশেষজ্ঞদের। আমরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বাইরের গরম থেকে বাসায় বা অফিসে ঢুকেই আগে এসি অন করি অনেকে তো আবার এসির ঠান্ডা থেকে বাচাঁর জন্য লেপ কম্বলও ব্যবহার করেন এটি আমাদের স্বাস্থের পক্ষে মারাত্বক ক্ষতিকর মনে রাখতে হবে যে এসি হয়তো শরীরকে বাচাবে কিন্তু শ্বাসযন্ত্রকে বাঁচাবে না।

মাত্রাতিরিক্ত ঠান্ডার শ্বাসযন্ত্রের মারাত্বক ক্ষতিসহ মাথায় ঠান্ডা লাগতে পারে তাছাড়া আদ্র পরিবেশে রোগ জীবানুর ভাইরাস সবচেয়ে বেশি সক্রিয় হয়ে ওঠে। হঠাৎ করেই গরম থেকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে প্রবেশ করার ফলে মাথা ঘোরা, মাথা ব্যাথা, জ্বর হওয়া সহ বিভিন্ন ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে।

দীর্ঘদিন এসি ব্যবহারের ফলে এসির অভ্যন্তরীন যন্ত্রাংশে ছত্রাক সহ বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়া জন্ম নেয় এসব ব্যাকটেরিয়া এসির বাতাসের সাথে প্রবাহিত হয়ে আমাদের বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত করতে পারে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী বাইরে থেকে এসে সাথে সাথে এসি না চালিয়ে কিছুক্ষণ স্বাভাবিক তাপমাত্রায় অতিবাহিত করে শরীরে ঘাম থাকলে সেগুলো মুছে তারপর এসি চালানো উচিত। তা না হলে আমাদের ত্বক শুষ্ক হওয়া সহ বিভিন্ন চর্ম জনিত রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা বৃদ্ধি পায়।